20252

05/26/2024 মিষ্টি ছাড়লেও কেন ডায়াবেটিস বাড়ে?

মিষ্টি ছাড়লেও কেন ডায়াবেটিস বাড়ে?

রাজ টাইমস ডেস্ক :

২১ মার্চ ২০২৪ ০৯:১৫

ডায়াবেটিস দীর্ঘ দিনের সঙ্গী। রক্তে শর্করা বশে রাখতে পুষ্টিবিদের পরামর্শ মতো মিষ্টি খাওয়া প্রায় ছেড়েই দিয়েছেন। তা সত্ত্বেও সকালে উঠে হাতে সুচ ফুটিয়ে যখন রক্ত পরীক্ষা করেন, শর্করা বাড়তির দিকেই থাকে।

এত কিছু করেও ডায়াবেটিসকে লাগাম পরানো যাচ্ছে না কেন? পুষ্টিবিদেরা বলছেন, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে হলে শুধু খাওয়াদাওয়ায় নয়, নজর দিতে হবে জীবনযাপনের আরো কয়েকটি বিষয়ের উপর।

১) দিনের বেশির ভাগ সময়েই বসে, শুয়ে কাটান? চিকিৎসকেরা বলছেন, শারীরিক সক্রিয়তার অভাব কিন্তু টাইপ ২ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে। তাই সম্ভব হলে রোজ অন্তত ৩০ মিনিট শরীরচর্চা করার চেষ্টা করুন। তার জন্য যে জিমে গিয়েই যে কসরত করতে হবে, এমন নয়। দিনের যেকোনো সময়ে হাঁটতে পারেন, সাইকেল চালাতে পারেন কিংবা যোগাসনও করতে পারেন।

২) কাজ থেকে ফিরে রোজ রাতে রান্না করতে মোটেই ভালো লাগে না। প্রায়ই অনলাইনে খাবার অর্ডার করেন। এই ধরনের খাবার কিন্তু রক্তে গ্লুকোজ বেড়ে যাওয়ার জন্য অনেক অংশে দায়ী। ময়দা, সাদা চিনি, শুকনো ফল এবং গ্লুটেন-যুক্ত খাবার এড়িয়ে চলাই ভালো। তার বদলে এমন খাবার খেতে হবে, যার মধ্যে প্রাকৃতিক শর্করা বেশি।

৩) রাতের খাবার খেয়েই শুয়ে পড়ার অভ্যাস রয়েছে? তা হলে কিন্তু ডায়াবেটিস হানা দিতে পারে। চিকিৎসকেরা বলছেন, রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণে রাখার স্বাভাবিক এবং সহজ একটি উপায় হল, রাতে তাড়াতাড়ি খাবার খেয়ে নেয়া। তাই রাত ৮টার মধ্যে নৈশভোজ সেরে নেয়ার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদেরা।

৪) যাদের রক্তে শর্করা একটু বাড়তির দিকে, তাদের জন্য ভাতঘুম একেবারেই নিষিদ্ধ। চিকিৎসকেরা বলছেন, এই অভ্যাস কিন্তু চুপিসারে রক্তে শর্করা বাড়িয়ে তোলে। এমনকি, রাতেও শোয়ার অন্তত পক্ষে ঘণ্টাদুয়েক আগে খাবার খেয়ে নিতে পারলে ভাল হয়।

৫) দীর্ঘ দিন ধরেই যাদের ডায়াবেটিস রয়েছে, ভারী খাবার খাওয়ার অন্তত আধঘণ্টা আগে ইনসুলিন ওষুধ বা ইঞ্জেকশন তাদের নিতেই হয়। এক দিন ভুলে গেলে বা ওষুধ বন্ধ রাখলেই রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যেতে পারে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

প্রকাশক ও সম্পাদক : মহিব্বুল আরেফিন
যোগাযোগ: ২৬৮, পূবালী মার্কেট, শিরোইল, ঘোড়ামারা, রাজশাহী-৬০০০
মোবাইল: ০৯৬৩৮ ১৭ ৩৩ ৮১; ০১৭২৮ ২২ ৩৩ ২৮
ইমেইল: [email protected]; [email protected]