জেগে উঠেছে পানির নিচের মসজিদ

ডেস্ক নিউজ | প্রকাশিত: ১২ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৬:৩৩; আপডেট: ১ ডিসেম্বর ২০২২ ০৯:২০

বাঁধ নির্মাণের কারণে তলিয়ে গিয়েছিল পানির নিচে। তবে নিমজ্জিত হওয়ার তিন দশক পর এসে এবার খরার প্রভাবে পানির নিচ থেকে জেগে উঠেছে একটি মসজিদ। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের বিহার রাজ্যের নওয়াদা জেলার ফুলওয়ারিয়া বাঁধের কারণে তিন দশক আগে তলিয়ে যাওয়া একটি মসজিদ এবার খরার প্রভাবে জেগে উঠেছে। বাঁধের জলাধারের দক্ষিণ প্রান্তে পানি শুকিয়ে যাওয়ার পর রাজৌলি ব্লকের চিরাইলা গ্রামে ওই মসজিদটির দেখা মিলেছে।

স্থানীয়রা জানান, ১৯৮৫ নালে ফুলওয়ারিয়া বাঁধ নির্মাণের পর ধীরে ধীরে পানির নিচে তলিয়ে যায় ‘নূরী মসজিদ’ নামে পরিচিত ওই মসজিদটি। মাটি থেকে ওপরের গম্বুজ পর্যন্ত মসজিদটির উচ্চতা প্রায় ৩০ ফুট।

কাশ্মীর মিডিয়া সার্ভিসের বরাতে এক্সপ্রেস ট্রিবিউন জানায়, পানির নিচ থেকে মসজিদটি জেগে ওঠার পর এ নিয়ে স্থানীয় লোকজনের মাঝে ব্যাপক কৌতূহল সৃষ্টি হয়েছে এবং মসজিদটি দেখতে ভিড় করছেন অনেকে।

এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের প্রতিবেদনে বলা হয়, স্থানীয় অনেকেই মসজিদটির ভেতরে প্রবেশ করেছেন এবং তিন দশক পানির নিচে থাকার পরও মসজিদ ভবনটি সম্পূর্ণ অক্ষত দেখে অবাক হয়েছেন। সবচেয়ে বিস্ময়কর ব্যাপার হলো, কয়েক দশক ধরে ডুবে থাকার পরও এই মসজিদের কাঠামোর সামান্যতম ক্ষতিও হয়নি।

এর আগে খরার প্রভাবে পানির স্তর কমতে শুরু করলে নূরা মসজিদের গম্বুজের একটি অংশ দেখা যাচ্ছিল। তখন এটি ওই মসজিদই কি-না, তা নিয়ে সন্দিহান ছিলেন স্থানীয়রা। কিন্তু সম্পূর্ণ পানি শুকিয়ে গিয়ে মসজিদটি পুরোপুরি দৃশ্যমান হওয়ার পর তাদের সব কৌতুহলের অবসান হয়েছে।

জানা যায়, মসজিদটি ২০ শতকের প্রথম দিকে নির্মিত হয়েছিল এবং এটি প্রায় ১২০ বছর পুরোনো হতে পারে।

 



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top