ঈদের দিন বৃষ্টি নিয়ে যা জানাল আবহাওয়া অফিস

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০২১ ১০:৩৬; আপডেট: ৩১ জুলাই ২০২১ ০১:০৫

ছবি: সংগৃহিত

বাংলাদেশে আগামীকাল বুধবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদ্যাপিত হবে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী ঈদের দিন বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ দিন ঢাকা বিভাগে ভারী বৃষ্টিপাত না হলেও কয়েকটি বিভাগে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

সোমবার (১৯ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী পাঁচ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আবহাওয়া অধিদফতর থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, আগামী পাঁচ দিন বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে। ঈদের দিন একটানা বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই, বৃষ্টি হলেও কিছুক্ষণের মধ্যে তা শেষ হয়ে যাবে। তবে ঈদের দিন ঢাকা বিভাগ, খুলনা বিভাগ ও বরিশাল বিভাগে বৃষ্টির সম্ভাবনা খুবই কম। সামান্য আকারে বৃষ্টিপাত হতে পারে। তবে চট্টগ্রাম, রংপুর, সিলেট, ময়মনসিংহ ও রাজশাহী বিভাগে ভারী বৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস রয়েছে।

এদিকে আগামী ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে আট বিভাগের বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ঈশ্বরদীতে সর্বোচ্চ ৭০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। পরবর্তী দু’দিনে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও এর কাছাকাছি এলাকায় একটি লঘুচাপ সৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। পরের ৫ দিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়তে পারে।

এছাড়া সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। আজকের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ইশ্বরদীতে ৩৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা চট্টগ্রামে ২৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৯১ শতাংশ।

আগামীকাল ঢাকায় সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬টা ৪৭ মিনিটে এবং সূর্যোদয় ভোর ৫টা ২২ মিনিটে।
পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, মৌসুমী বায়ুর অক্ষের বাড়তি অংশ রাজস্থান, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। এর একটি বাড়তি অংশ উত্তর বাঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দূর্বল থেকে মাঝারী অবস্থায় বিরাজ করছে।

 



বিষয়: আবহাওয়া


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top