ধর্ষণ মামলায় পুঠিয়ার মেয়র বরগুনায় গ্রেপ্তার

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৭:২৮; আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ০৮:৫০

ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আল মামুনকে গ্রেপ্তার করেছে বরগুনা সদর থানা পুলিশ।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সদরের ক্রোক স্লুইস এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুঠিয়া পৌরসভার মেয়র আল মামুন একই উপজেলার গন্ডগোহালী গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, গত বছরের এপ্রিল মাসে পৌরসভায় চাকরির জন্য মেয়রের কাছে গিয়েছিলেন স্থানীয় এক কাঠ ব্যবসায়ীর মেয়ে। এরপর মেয়র মামুন বিভিন্ন প্রলোভনে নিয়মিত ধর্ষণ করতেন ওই তরুণীকে। এক পর্যায়ে তার এই অনৈতিক কাজে রাজি না হওয়ায় মেয়র তাকে বিয়ের প্রলোভনে আরও কয়েকবার ধর্ষণ করেন। সম্প্রতি মেয়র তাকে চাকরি দেবে না বা বিয়ে করবে না বলে জানিয়ে দেন। বিষয়টির প্রতিবাদ করায় মেয়রের লোকজন ওই তরুণীকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এ কারণে মেয়রের বিরুদ্ধে পুঠিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।

ঘটনার পর থেকে মেয়র আল মামুন পলাতক ছিলেন। বুধবার সকালে বরগুনা থানা পুলিশ জানতে পারে মেয়র মামুন বরগুনা সদরে তার গাড়িচালকের বাসায় লুকিয়ে আছেন। পরে সেখানে অভিযান চালিয়ে সদর থানার এসআই দেবাশীষ ও হেলাল তাকে গ্রেপ্তার করেন।

অভিযুক্ত পুঠিয়ার মেয়রের গাড়িচালক মনিরুল ইসলাম বলেন, তিনি (মেয়র) বিএনপি থেকে নির্বাচিত হয়েছেন। তাই তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা তাকে ফাঁসিয়েছে। তিনি গতকাল আমাদের বাসায় এসেছিলেন। আজ সকালে পুলিশ আমার বাসা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। এ মামলা সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্রমূলক।

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী আহম্মেদ বলেন, পুঠিয়া থানা থেকে তথ্য দেয়া হলে বরগুনা সদরের ক্রোক স্লুইস এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত মেয়রকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। আইনি প্রক্রিয়ায় পুঠিয়া পুলিশের কাছে আসামিকে হস্তান্তর করা হবে।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top