পদ্মায় গোসলে নেমে প্রকৌশলী-ব্যাংকারের মৃত্যু, নিখোঁজ শিক্ষার্থী

রাজ টাইমস ডেস্ক : | প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২৪ ২২:১৬; আপডেট: ৩০ মে ২০২৪ ১৪:৫৬

ছবি: সংগৃহীত

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলায় পদ্মার শাখা নদীতে গোসলে নেমে রেলওয়ের প্রকৌশলী ও ব্যাংকারের মৃত্যু হয়েছে; নিখোঁজ রয়েছে এক স্কুলছাত্র।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) বিকেল ৪টার দিকে উপজেলার দিঘীরপাড় বাজার সংলগ্ন পদ্মার শাখা নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত দুজন হলেন- বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী রিয়াদ আহমেদ রাজু (৪৫) ও ব্যাংক কর্মকর্তা জুয়েল রানা (৪০)।

নিখোঁজ রিয়াদ রামিন আরিদ (১৬) প্রকৌশলী রিয়াদ আহমেদের ছেলে। আরিদ মাইলস্টোন স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির ছাত্র।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গিবাড়ি উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের টিম ও নৌ পুলিশ। তারা নদীর তলদেশ থেকে নিখোঁজ দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে। এখনও উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস।

পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা জানান, ঈদের ছুটিতে তারা ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে উপজেলার বেশনাল গ্রামে তার চাচা ইকবাল মোল্লার বাড়িতে বেড়াতে আসে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার দিঘীরপাড় ইউনিয়নের ধানকোড়া এলাকায় পদ্মার শাখা নদীতে প্রায় ৩০ থেকে ৩৫ জন মিলে ইঞ্জিনচালিত ট্রলার যোগে পদ্মা নদীতে ঘুরতে বের হলে বেশ কয়েকজন গোসল করতে নামে। নদীতে প্রচণ্ড স্রোত থাকার কারণে অনেকেই তীরে আসতে পারলেও নিখোঁজ তিনজন নদীতে ভেসে যান।

নিখোঁজ রাজুর বোন জামাই মিথুন বলেন, আমরা এই এলাকায় ঘুরতে এসে নদীতে গোসল করতে নামলে হঠাৎ তারা নদীর পানিতে বালির গর্তে পরে পানির স্রোতে নিখোঁজ হয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাদের না পেয়ে পরে ফায়ার সার্ভিস খবর দেই। নিখোঁজদের উদ্ধারে মুন্সীগঞ্জ সদর ও টঙ্গিবাড়ি উপজেলার ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ও নৌ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে চেষ্টা চালাচ্ছে।

টঙ্গিবাড়ি ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মোস্তফা কামাল বলেন, সংবাদ পেয়ে আমাদের টিম ঘটনাস্থলে এসে উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে। ঢাকা থেকে ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছে। আমরা অভিযান চালিয়ে ইতোমধ্যে দুটি মরদেহ উদ্ধার করেছি।

মুন্সীগঞ্জ সদর থানার চর আব্দুল্লাহ নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আবুল হাসনাত জানান, ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস ও নৌপুলিশের টিম রয়েছে। উদ্ধার কাজ চলছে।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top