খুলনার পাইকগাছায় বৃহস্পতিবার থেকে ৭ দিনের লকডাউন

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ৮ জুন ২০২১ ২১:১০; আপডেট: ১৮ জুন ২০২১ ০৮:০১

প্রতীকি ছবি
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার পৌর এলাকায় সাত দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় প্রশাসন। ১০ জুন (বৃহস্পতিবার) সকাল ৬টা থেকে ১৬ জুন বুধবার রাত ১২টা পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। পাশাপাশি উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চারটি গুরুত্বপূর্ণ হাটবাজারও এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকবে।
 
আজ মঙ্গলবার এক গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পাইকগাছা উপজেলা প্রশাসন এই সিদ্ধান্তের কথা জানায়। বন্ধ ঘোষিত হাটবাজারগুলো হলো কপিলমুনি হাট, চাঁদখালী হাট, বাঁকা বাজার ও কাটিপাড়া বাজার।
 
চলতি বছর খুলনা জেলার মধ্যে এটাই প্রথম কোনো উপজেলায় লকডাউন ঘোষণা করা হলো। এর আগে ৪ জুন থেকে মহানগরের তিনটি থানা ও পাশের রূপসা উপজেলায় কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা হয়। ১০ জুন বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সাত দিনের ওই বিধিনিষেধ চলবে।
 
পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি এ বি এম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী বলেন, শুধু পৌরসভা এলাকায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আর পাইকগাছার ৪টি হাটবাজার ১০ জুন থেকে এক সপ্তাহ বন্ধ থাকবে। লকডাউন এলাকা ও চারটি বাজারে শুধু ওষুধ, নিত্যপ্রয়োজনীয় মুদিদোকান, কাঁচাবাজার ছাড়া সব দোকান, শপিং মল বন্ধ থাকবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় ওই দোকানগুলো সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। আদেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে এলাকাগুলোতে মাইকিং করা হচ্ছে।
 
গণবিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে, হোটেল–রেস্টুরেন্টে শুধু টেকওয়ে বা অনলাইনে বিক্রয়/ সরবরাহ করতে পারবে, কিন্তু বসে কেউ খেতে পারবে না। পৌরসভার অভ্যন্তরের সব ধরনের গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। সব ক্রেতা ও বিক্রেতার বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধান, ন্যূনতম তিন ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মানতে হবে।
 
খুলনা সিভিল সার্জনের কাযালয় থেকে জানা গেছে, এ পর্যন্ত পাইকগাছা উপজেলায় ২৫৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৭ জন মারা গেছেন। হাসপাতালে ভর্তি ১০ জন। চলতি মাসের ৮ দিনে উপজেলায় ২৪ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।
 
 
 
 
 
 


বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top