বাঘায় ঘরবাড়ি ভাংচুরের অভিযোগ

লালন উদ্দীন, বাঘা | প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারী ২০২২ ২১:৩৩; আপডেট: ১৯ জানুয়ারী ২০২২ ১৪:১৯

রাজশাহীর বাঘায় দুষ্কৃতিকারী কর্তৃক ঘরবাড়ি ভাংচুর ও টাকাসহ স্বর্ণ অংলকার লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায় রাজশাহীর বাঘা উপজেলার তেপুকুরিয়া গ্রামে আনসার আলীর ছেলে আজদার আলী ১৯৮২ সালে জমির ক্রয় করে ঘরবাড়ি করে বসবাস করে আসছে। 

এই জমি নিয়ে একই গ্রামের ফুলচান মন্ডলের ছেলে বিপুলের সাথে বিরোধ চলে আসছে। এই ঘটনায় গত ১০ জানুয়ারি সন্দ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে বিপুল ও তার ডাঙ্গাবাজ বাহিনী নিয়ে রাতের অন্ধকারে অতর্কিতভাবে আজদারের বাড়িতে হামলা চালিয়ে তিনটি ঘর সম্পূর্ণ ভাংচুর করে এবং তার স্টিয়ারিং গাড়ি বিক্রয় করা ২’লক্ষ টাকা দেড়ভরি স্বর্ণ অলংকারসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আজদার আলী বাদী হয়ে রাজশাহী চিপ জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বিপুলসহ ১১ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করে।

এ ব্যাপারে আজদারের কথা বললে আজদার বললে তিনি বলেন ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাটের সময় বাঘা থানার এসআই তৈয়ব ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে আমার ঘরবাড়ি ভাংচুর করিয়েছে। আমি তৈবুর রহমানকে বললে তিনি আমার কথায় কর্ণপাত করেননি। ঘটনার সময় এলাকার লোকজন বাঘা থানা ও ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে বাঘা থানার এসআই মেহেদী ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তাবে তার আগেই ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করে নিয়ে যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে।

এ ব্যাপারে বাঘা থানার এসআই তৈমুরের সাথে কথা বললে তিনি বলেন আমি ঘর ভাঙ্গার সময় ছিলাম না। তবে দুই পক্ষেরই অভিযোগ আমার নিকট রয়েছে। এ ঘরবাড়ি ভাংচুর ও লুটতরাজের বিষয় সন্ত্রাসী বিপুলসহ ১১ জনকে আসামী করে রাজশাহী দ্রুত বিচার আদালতে একটি পিটিসন মামলা দায়ের করেছেন ক্ষতিগ্রস্থ আজগর আলী।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top