তানোরে কাস্টমস কর্মকর্তা পরিচয়ে শিক্ষিকাকে বিয়ে, ১৮ লাখ টাকা হাতানোর অভিযোগ

রাজটাইমস ডেস্ক: | প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২৪ ১৬:২৬; আপডেট: ৩০ মে ২০২৪ ১৬:৪৭

ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহীর তানোরে কাস্টমস কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এক স্কুলশিক্ষিকাকে বিয়ে করে প্রতারণা ও ১৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল রোববার সন্ধ্যায় পৌরশহরের জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার যুবকের নাম নাজির হোসেন (৩৭)। তিনি তানোর উপজেলার কলমা গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে। স্কুলশিক্ষিকার দায়ের করা মামলায় তাঁকে গ্রেপ্তার করে তানোর থানা-পুলিশ।

গ্রেপ্তারের বিষয় করেন তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহিম। তিনি বলেন, ‘আজ সোমবার দুপুরে আইনি প্রক্রিয়া শেষে নাজির হোসেনকে আদালতের মাধ্যমে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’

মামলা সূত্রে জানা গেছে, তানোর উপজেলার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষিকার সঙ্গে বছরখানেক আগে ফেসবুকে পরিচয় হয় নাজির হোসেনের। এরপর তাঁদের মধ্যে ফেসবুকের মেসেঞ্জারে ও হোয়াটসঅ্যাপে কথা হতো। নাজির নিজেকে খুলনা মোংলা বন্দরের কাস্টমস কর্মকর্তা এবং অবিবাহিত বলে পরিচয় দিতেন।

তালাকপ্রাপ্ত জানার পরও নাজির বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিভিন্ন সময় স্কুলশিক্ষিকার কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেন। সর্বশেষ জমি, পুকুর ও মোটরসাইকেল কেনার নামে গত ৩ মার্চ ৮ লাখ ৬০ হাজার টাকা নিয়েছেন। এভাবে বিভিন্ন কৌশলে প্রায় ১৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন নাজির।

স্কুলশিক্ষিকা বলেন, ‘গত ২০ এপ্রিল কাজি অফিসে গিয়ে সরল বিশ্বাসে নাজিরকে বিয়ে করি। তাঁর কথায় বিয়ের দিনই আমার বাবার বাড়িতে একা চলে আসি। কিন্তু ২৫ এপ্রিল নাজির ডাকযোগে আমাকে স্কুলে ও বাবার বাড়ির ঠিকানায় তালাকের চিঠি পাঠান।’

স্কুলশিক্ষিকা আরও বলেন, ‘খোঁজ নিয়ে জানতে পারি নাজির আগেও দুটি বিয়ে করেছেন। এলাকায় সে প্রতারক বলে পরিচিত। সবকিছু জানার পর ১৮ লাখ টাকা চাইলে নজির আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেন। পরে বাধ্য হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছি।’




বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top