রাজশাহীতে শহর পেরিয়ে গ্রামাঞ্চলেও করোনার থাবা

সোহরাব হোসেন সৌরভ, রাজশাহী | প্রকাশিত: ১৬ জুন ২০২১ ১৭:২৯; আপডেট: ১৬ জুন ২০২১ ১৭:৩৫

স্ট্রেচারে করে নেয়া হচ্ছে রোগীকে

করোনা এখন শুধু রাজশাহী শহরেই নয়, থাবা বসিয়েছে গ্রামাঞ্চলেও। শহরের গন্ডি পেরিয়ে এখন বিস্তার ঘটিয়েছে গ্রামাঞ্চলেও। এদিকে গ্রামাঞ্চলে করোনা ছড়িয়ে পড়ায় শঙ্কিত হয়ে পড়েছে স্থানীয় প্রশাসনও। সংক্রমণ ঠেকাতে আজ বুধবার (১৬ জুন) রাত সাড়ে আটায় নগরীর সার্কিট হাউজে জরুরী বৈঠকের মাধ্যমে লকডাউনের পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়ার কথা জানিয়েছেন রাজশাহীর জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল।

এদিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৬ টা থেকে বুধবার সকাল ৬ টার মধ্যে বিভিন্ন সময়ে তারা মারা যান। এদের মধ্যে ৭ জন পুরুষ ও ৬ জন মহিলা। মৃতদের মধ্যে রাজশাহীর ৮ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪ জন ও কুষ্টিয়ার ১ জন।

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়াদের মধ্যে পাঁচজনের করোনা পজেটিভ ছিল। বাকিরা শ্বাসকষ্টসহ করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। তিনি জানান, রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার হাসপাতালে ২ টি আইসিইউসহ ৩৪ টি বেড বাড়ানো হয়েছে। এছাড়াও আরও ১৫ জন চিকিৎসক পাঠানোর জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে চিঠি দেয়া হয়েছে।

এদিকে করোনা এখন শুধু শহরেই নয়,ছড়িয়ে পড়েছে গ্রামাঞ্চলেও। তাই বাড়ছে আক্রান্তের হার। বাড়ছে হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যাও। গত মঙ্গলবার রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নতুন করে ভর্তি হয়েছেন আরও ৫৮ জন। রাজশাহী মেডিক্যালে করোনায় মারা যাওয়াদের বেশিরভাগই ডেল্টা ভেরিয়েন্টে আক্রান্ত বলে মনে করছেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার শামীম ইয়াজদানি।পরিচালক জানান,রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে বর্তমানে চিকিৎসাধীন করোনা রোগীর ৪০ শতাংশই গ্রামাঞ্চলের। কারণ হিসাবে তিনি বলছেন, গ্রামের মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি কম মানা, সব জায়গায় অবাধে চলাচল, মাস্ক না পরাসহ আরও নানা কারণে ভর্তির সংখ্যা বাড়ছে।

রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় মৃত্যু হারও কমছে না বলছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাই সংক্রমণের বিস্তার ঠেকাতে শহরের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলেও বিধিনিষেধ আরোপের পরামর্শ তাদের। লকডাউনের সুফল পেতে সাত দিনের পরিবর্তে অন্তত ১৪ দিনের লকডাউনের পরামর্শ দিচ্ছেন রামেক হাসপাতালের পরিচালক ও চিকিৎসকরা।

এদিকে করোনার উচ্চ সংক্রমণ ঠেকাতে রাজশাহী শহরে শুক্রবার (১১ জুন) বিকেল ৫ টা থেকে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ শুরু হয়েছে। আগামী ১৭ জুন পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করে স্থানীয় প্রশাসন। কঠোর লকডাউনে শহরের দোকানপাট বন্ধ আছে। গণপরিবহণ চলছে না। সাধারণ মানুষের চলাচলও সীমিত হয়ে গেছে।

 

  • এসএইচ 

 

 



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top