প্রথম বইমেলায় নতুন বই ছিলো ৩২ টি, এবার কতটি?

রাজ টাইমস ডেস্ক : | প্রকাশিত: ৩ মার্চ ২০২৪ ১৪:০৯; আপডেট: ২৭ মে ২০২৪ ০৯:২৮

- ছবি - ইন্টারনেট

প্রাণের বইমেলা ঘিরে লেখক-পাঠক ও প্রকাশকদের অপেক্ষায় কাটে পুরো বছর। নতুন চিন্তার, নতুন লেখা নিয়ে পাঠকের সামনে আসতে দিন গুনতে থাকেন লেখকরা। মেলার আগে থেকে বই ছাপানোর কাজে নামেন প্রকাশকরা।

তবে এবারের মেলায় নতুন বইয়ের সংখ্যা গেলো বছরকেও ছাড়িয়ে গেছে। শুরুর দিন থেকে মেলা চলার সময় প্রতিদিনই পাঠকের হাতে ওঠে নতুন বই।

বাংলা একাডেমির তথ্যকেন্দ্রের দেয়া তথ্য অনুযায়ী এবার ১ মার্চ পর্যন্ত ৩৭৫১টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। গতবছর ৩৭৩০টি নতুন বই বের হয়েছিলো। শনিবার (২ মার্চ) অমর একুশে বইমেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমির উপ-পরিচালক শাহেদ মমতাজ এ তথ্য জানান।

তবে বাংলা একাডেমির দাবি, অনেক প্রকাশক তাদের নতুন সব বইয়ের তথ্য না দেয়ায় মেলায় প্রকৃতপক্ষে কত নতুন বই এসেছে এই তথ্য পাওয়া যায়নি। গতবারের মতো এবারও বাংলা একাডেমির একটি কমিটিকে দিয়ে প্রাপ্ত সব বইয়ের মান প্রাথমিকভাবে নিরূপণের চেষ্টা করা হয়েছে। আসলে এত স্বল্প সময়ে সঠিকভাবে মানসম্মত বই বাছাই বা নিরূপণ করা বাস্তবসম্মত নয়।

শাহেদ মমতাজ বলেন, আমাদের ধারণা এর বাইরেও আরও কিছু নতুন বই ও মোড়ক উন্মোচনের তথ্য উল্লিখিত পরিসংখ্যানের বাইরে রয়ে গেছে। আমাদের ধারণা এর বাইরেও আরও কিছু নতুন বই ও মোড়ক উন্মোচনের তথ্য উল্লিখিত পরিসংখ্যানের বাইরে ছিল।

ইতিহাস বলছে, ১৯৭২ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি বাংলা একাডেমির বর্ধমান হাউসের সামনে পাটের চটের ওপরে মাত্র ৩২টি বইয়ের পসরা সাজিয়ে স্বাধীন বাংলা সাহিত্য পরিষদ বইমেলার যাত্রা শুরু করে। সে সময় এ প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা শ্রী চিত্তরঞ্জন সাহার হাত ধরেই মূলত বইমেলার যাত্রা শুরু।

এরপর ১৯৭৩ সালের ১৫ থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি বাংলা একাডেমি বিশেষ ছাড়ে নিজেদের বই বিক্রির ব্যবস্থা করে। এর পাশাপাশি একাডেমি প্রাঙ্গণে বেশ কিছু প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানও ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে বই বিক্রি শুরু করে।

১৯৭৪ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় সাহিত্য সম্মেলনের বই প্রদর্শনী ও ম্যুরাল প্রদর্শনী উদ্বোধন করেন। ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত বাংলা একাডেমি কেবল প্রকাশনা সংস্থাগুলোকে জায়গা বরাদ্দ দিত। আয়োজক হিসেবে তাদের অফিশিয়াল কোনো পরিচিতি ছিল না।

পরবর্তী সময়ে ১৯৭৮ সালে বাংলা একাডেমি সরাসরি মেলায় সম্পৃক্ত হয়। ১৯৭৯ সালে একাডেমির সঙ্গে যুক্ত হয় বাংলাদেশ পুস্তক বিক্রেতা ও প্রকাশক সমিতি। সেই থেকে শুরু করে আজ অবধি বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে আয়োজন হচ্ছে অমর একুশে বইমেলা।

শুরুতে বইমেলা হতো ২১ দিন। ১৯৮১ সালে এটি কমিয়ে ১৪ দিনের সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও প্রকাশক ও পাঠকদের দাবির মুখে তা আবার ২১ দিনে ফিরিয়ে আনা হয়। পরবর্তী সময়ে ১৯৮৪ সাল থেকে মাসজুড়ে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয় বাঙালির প্রাণের এ মেলা।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top