ধামরাইয়ে পৌর বিএনপির সম্মেলনে ২ পক্ষের সংঘর্ষ

রাজ টাইমস | প্রকাশিত: ৮ মে ২০২২ ২০:৩৮; আপডেট: ৮ মে ২০২২ ২০:৪৪

ঢাকার ধামরাইয়ে পৌর বিএনপির সম্মেলনে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ছাত্রদলের এক নেতাসহ অন্তত ৪ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুই গ্রুপের নেতারা একে অপরকে দোষারোপ করেছেন।

আজ রোববার সকালে উপজেলার আইঙ্গন এলাকায় কিষাণ রাইস মিলে পৌর বিএনপির সম্মেলনে এ ঘটনা ঘটে।

বিএনপির নেতাকর্মীরা জানায়, সকালে পৌরসভার আইঙ্গন এলাকায় উপজেলা বিএনপির সভাপতি তমিজ উদ্দিনের চালের মিলে পৌর বিএনপির সম্মেলন শুরু হয়। কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে ছিলেন দলের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আ্যডভোকেট সালাম ও বেনজির আহমদ টুকু। পরে সম্মেলনে নেতাকর্মীসহ যোগ দিতে আসেন পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক আহ্বায়ক দেওয়ান নাজিম উদ্দিন মঞ্জু। গেটে লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা তমিজ উদ্দিনের অনুসারীরা মঞ্জুর কয়েকজন সমর্থককে ঢুকতে বাধা দেন। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে কেন্দ্রীয় নেতারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন ও আহতদের হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। খবর পেয়ে পরে পুলিশও সেখানে এসে অবস্থান নেয়।

সংঘর্ষের পর সভাপতি পদ বাকি রেখে সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকের নাম ঘোষণা করে ১০১ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

এদিকে, এ ঘটনার জন্যে উপজেলা বিএনপির সভাপতি তমিজ উদ্দিনকে দায়ী করেছেন পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক আহ্বায়ক দেওয়ান নাজিম উদ্দিন মঞ্জু।

তিনি বলেন, তমিজ উদ্দিন লাঠিসোটা দিয়ে আমাদের ছেলেদের পিটিয়েছে। এতে ৪-৫ জন আহত হয়েছে। কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই এই ঘটনা ঘটেছে। আওয়ামী লীগের সঙ্গে আঁতাত করে তিনি কমিটি করেছেন।
তবে অভিযোগ অস্বীকার করে তমিজ উদ্দিন বলেন, স্থানীয় কিছু ছেলে মারামারি করেছে। আমি ভেতরে ছিলাম। সে কারণে বলতে পারছি না। কিছু স্বঘোষিত নেতা এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে।

ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) তন্ময় সাহা বলেন, খবর পেয়ে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সেখানে তাদের কাউকে পাইনি। এ ঘটনায় কোনো অভিযোগও পাওয়া যায়নি।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top