রাজশাহীতে আজ থেকে নামছে সবধরনের গুটি আম

রাজটাইমস ডেস্ক: | প্রকাশিত: ১৫ মে ২০২৪ ১৬:২৫; আপডেট: ৩০ মে ২০২৪ ১৬:২২

ছবি: সংগৃহীত

জ্যৈষ্ঠের শুরুতে গুটি আম পাড়ার মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে রাজশাহী জেলার আম সংগ্রহ ও বাজারজাতকরণ। বুধবার (১৫ মে) থেকে জেলা প্রশাসন ঘোষিত ম্যাংগো ক্যালেন্ডার অনুযায়ী আম বাজারজাত করণ চলবে।

সকাল থেকে রাজশাহীর বিভিন্ন এলাকার কৃষকরা আম নামানো শুরু করেছেন। তবে আমেরে প্রধান বাজার বানেশ্বর এখনও ফাঁকা। এ বাজার জমতে শুরু হতে অপেক্ষা করতে হবে ২৫ মে পর্যন্ত।

জেলা প্রশাসনের তথ্যমতে, ম্যাংগো ক্যালেন্ডার অনুযায়ী আজ (বুধবার) থেকে সব ধরনের গুটি, ২৫ মে থেকে গোপালভোগ-রানিপছন্দ, ৩০ মে থেকে খিরসাপাত, ২৫ মে থেকে লক্ষণভোগ-লখনা, ১০ জুন থেকে ল্যাংড়া-ব্যানানা ম্যাংগো, ১৫ জুন থেকে আম্রপালি, ১৫ জুন থেকে ফজলি, ৫ জুলাই থেকে বারি আম ৪, ১০ জুলাই থেকে আশ্বিনা, ১৫ জুলাই থেকে গৌড়মতি, ২০ আগস্ট থেকে ইলামতি এবং কাটিমন ও বারিআম-১১ সারা বছর সংগ্রহ করা যাবে।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের তথ্য মতে, এ বছর রাজশাহী জেলায় ১৯ হাজার ৬০২ হেক্টর জমিতে আম চাষ হচ্ছে। উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা দুই লাখ ৬০ হাজার ১৬৪ মেট্রিক টন।

এদিকে ম্যাংগো ক্যালেন্ডার অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে পরিপক্ব আম কৃষক ও ব্যবসায়ীদের আম বাজারজাত করার অনুরোধ জানান জেলা প্রশাসন ও কৃষি বিভাগ। সেই লক্ষে সকাল থেকেই বেধে দেওয়া সময়ে আম সংগ্রহ শুরু করেছেন জেলার আম চাষিরা। তবে শুরুর দিনে তেমন আম ভাঙেনি কেউ। কিছু কিছু চাষি অল্প পরিসরে গুঁটি আশ সংগ্রহ করেছেন। এসব আমের দাম বেশে ভালো পেয়ে খুশি চাষিরা।

রাজশাহীর পবা এলাকার চাষি আনোয়ারুল হক প্রথম দিনে আম সংগ্রহ শুরু করেছেন। তিনি বলেন, এবার আমের দাম বেশ ভালো হবে। চলতি বছরের আম সংগ্রহ শুরু করেছি। শুরুর দিনে গুঁটি আম সংগ্রহ করছি। এসব আম এখন পরিপক্ব হয়েছে। তাই সংগ্রহ করা যাবে। এ জন্য নির্ধারিত তারিখ মেনে সংগ্রহ শুরু করেছি।

রাজশাহীর বানেশ্বর এলাকার চাষি রাজিব হোসেন বলেন, এবার বৃষ্টি কম। আমও কম। তবে যা আম আছে এতে করে আশ্বিনা ও আমরুপালি বেশি। এসব আমে দাম বেশি হবে।

তিনি বলেন, আজ থেকে গুটি আমের সংগ্রহ শুরু হয়েছে। আজ সকালে দুইট গাছের আম সংগ্রহ করছি। এসব গুটি জাতের আম। এগুলো আচারের জন্যই বেশি ব্যবহার হয়। তবে কিছু আম আড়তে বিক্রি করবো। এসব আম অন্তত ১২শ থেকে ১৪শ টাকা মন হিসেবে বিক্রি হবে। গতবার এ আম ৬শ থেকে ৮শ টাকার বিক্রি করেছি।

রাজশাহীর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক মোছা. উম্মে ছালমা বলেন, থেকে রাজশাহীর আম বাজারজাতকরণ শুরু হয়েছে। এটি পর্যায়ক্রমে চলবে। আমরা আশা করবো ম্যাংগো ক্যালেন্ডার অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে পরিপক্ব আম কৃষক ও ব্যবসায়ীরা বাজারজাত করবে।

বানেশ্বর হাট ইজারাদার জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এখনও হাট জমে উঠেনি। আজ থেকেই বাজারজাত শুরু হবে। তবে গুটি আমে বাজার জমে উঠবে না। মূল বাজার জমে উঠতে গোপালভোগ আম বাজারে আসতে হবে। সেই লক্ষ্যে ২৫ মে পর্যন্ত বাজার জমে উঠবে না। এরপর থেকেই বাজার জমে উঠবে।




বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top