হোয়াটসঅ্যাপে যে ৪ ধরনের ভুয়া মেসেজ এড়িয়ে চলবেন

রাজটাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১২:৪১; আপডেট: ২ অক্টোবর ২০২২ ১৫:২৮

ছবি: সংগৃহীত

মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন না এমন মানুষ এখন খুব কম দেখা যায়। প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মেসেজ-এর সাহায্যে পাঠানো হয়। তবে কথায় আছে, যেকোনো ভালো কিছুর একটি খারাপ দিক আছে। আর তাই জালিয়াতরা এখন সাধারণ মানুষকে ঠকাতে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করছে। এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে কিছু মেসেজ ছড়ানো হচ্ছে, যেগুলিকে বিশ্বাস করলে আপনি বিপদে পড়তে পারেন। আসুন এগুলি সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

চাকরি সম্পর্কিত মেসেজ
হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের এখন অনেক ভুয়া কোম্পানি থেকে মেসেজ পাঠিয়ে চাকরির প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। ভাল বেতনের লোভ দেখিয়ে এই মেসেজে একটি লিঙ্কে ক্লিক করতে এবং নিজের সম্পর্কে তথ্য দিতে বা একটি নম্বরে কল করতে বলা হয়। তারপর ছলে বলে কৌশলে ব্যবহারকারীর ব্যাংকের তথ্য হাতিয়ে তাকে ঠকানো হয়।

লাকি ড্র বা পুরস্কার জয়ের মেসেজ
এটি প্রতারকদের পুরানো কৌশলগুলির একটি, যেখানে ব্যবহারকারীদের প্রলুব্ধ করা হয় এবং ফাঁদে ফেলা হয়। এই ধরনের হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজগুলি কেবিসি জিও লাকি ড্র বা এই জাতীয় অন্যান্য নাম দিয়ে করা হয় এবং ব্যবহারকারীদের জানায় যে তারা নগদ পুরস্কার জিতেছে। ব্যবহারকারীদের এই পুরস্কার মূল্য পাওয়ার জন্য মেসেজের সাথে দেওয়া লিঙ্কে ক্লিক করতে বলা হয় এবং সেখানে ক্লিক করার পর একটি ফর্ম সামনে আসে, যেখানে নিজের বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য পূরণ করতে বলা হয়। এরপর প্রসেসিংয়ের জন্য কিছু অর্থ দাবি করা হয়। আর তাদেরকে বিশ্বাস করে একবার টাকা দিলেই, আরও অর্থ দাবি করা হয়। এভাবেই চলে প্রতারণা।

ওটিপি চাওয়া মেসেজ
কিছু হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী এমন মেসেজও পান যেখানে তাদের নম্বরে আসা ওটিপি চাওয়া হয়। ওই মেসেজে লেখা থাকে, ‘দুঃখিত আমি ভুল করে আপনার নম্বরে ওটিপি’সহ একটি গুরুত্বপূর্ণ মেসেজটি পাঠিয়ে দিয়েছি। আপনি কি আমাকে এই ওটিপি বলতে পারবেন? এটা স্পষ্ট যে প্রতারকরা ভুল করে কোনও ওটিপি পাঠায় না, তবে ওটিপির সাহায্যে তারা ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টে ঢুকে লগইন করার চেষ্টা করতে পারে।

একটি ভিডিও বা ছবিতে আপনাকে দেখার দাবি
অনেক সময় হোয়াটসঅ্যাপ এবং অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে, প্রতারকরা মেসেজের সাথে লিঙ্ক পাঠায় এবং ভয় দেখিয়ে লিঙ্কটিতে ক্লিক করার জন্য চেষ্টা করে। মেসেজে লেখা থাকে, ‘এই ভিডিওতে কি আপনাকে দেখা যাচ্ছে?’ বা ‘এটা কি আপনার ছবি?’ এটা স্পষ্ট যে, কৌতুহলবশত ব্যবহারকারী এই মেসেজের সঙ্গে দেওয়া লিঙ্কে ক্লিক করেন এবং তাকে ম্যালিশিয়াস ওয়েবসাইটে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এরপর ব্যবহারকারীর ডিভাইস হ্যাক করার চেষ্টা করা হয়।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top