পবায় আ’লীগের সম্মেলন ঘিরে উৎসবের আমেজ

রাজ টাইমস ডেস্ক | প্রকাশিত: ১৫ জুন ২০২২ ১৯:৪৭; আপডেট: ২৯ নভেম্বর ২০২২ ০১:১১

ছবি: প্রতীকি

পবা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে সার্থক ও সফল করতে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। সম্মেলন প্রাণবন্ত করতে চলছে বর্ধিত সভা, প্রস্তুুতি সভা, আলোচনা ও জরুরী সভা। পাশাপাশি পোষ্টার, ব্যানারে ছেয়ে যাচ্ছে এলাকা।

পাড়া মহল্লায় সম্মেলন আর নতুন কমিটি গঠন নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। পবা উপজেলার আটটি ইউনিয়নের মধ্যে ছয়টিতে এবং দু’টি পৌরসভার একটিতে কমিটি গঠন করা হবে। ইতিমধ্যে সম্মেলনের দিনও ধার্য করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ।

সম্মেলনকে ঘিরে উপজেলা জুড়েই সাজ সাজ রব বিরাজ করছে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দলটির নেতা-কমীদের মাঝে ব্যাপক উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। বিশেষ করে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশি সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজ নিজ অবস্থান শক্ত করতে প্রচারণা ও সমর্থন আদায়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তারা একদিকে তৃণমূলের ভোটার এবং অন্যদিকে ঊর্ধ্বতন নেতা-কর্মীদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলছেন।

আবার প্রার্থীরা একে অপরকে দোষারোপ করতেও ছাড়ছেন না। তবে সাধারণ নেতা কর্মীদের দাবি ভোটের মাধ্যমে যেন তাদের নেতা নির্বাচিত হয়। শুধু কাগজে নয়, একনিষ্ট কর্মীকে নেতা হিসেবে দেখতে চান তারা। কারণ কাগজে নাম উঠানো নেতারা দলের সংকট মুহুর্তে পালিয়ে যায়। একই সাথে বিতর্কিত কাউকে দলে ঠাঁই না দেয়ার দাবি তাদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকের মতে এবারে বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটিতে নতুন মুখের সম্ভাবনাই বেশী। ত্যাগি নেতাদের অনেকেই এবারে পদ থেকে ছিটকে পড়ার আশংকা করছেন অনেকেই। তবে পবা উপজেলা অওয়ামী লীগ সভাপতি ও পবা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী বলেন, ত্যাগি ও পরীক্ষিত নেতারাই মূল্যায়িত হবেন। তিনি আরো বলেন, জুন মাসের মধ্যেই কমিটি গঠনের সকল প্রক্রিয়া শেষ করা হবে।

আগামী ১৭ জুন শুক্রবার বেলা ৩টায় শিতলায় মাঠে দামকুড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এখন পর্যন্ত সভাপতি পদে দামকুড়া ইউপি’র চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক পদে অর্ধডজন প্রার্থীর নাম শুনা যাচ্ছে। এরা হলেন আলমগীর হোসেন হাবিব, মোক্তারুল ইসলাম মুকুল, এনামুল হক, বাবলুর রশিদ, আমির হোসেন ও শফিকুল ইসলাম।

পবা উপজেলার আওয়ামী লীগের নির্ধারিত তারিখে সম্মেলন হলে আগামী ১৯ জুন পারিলা ইউনিয়নের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। রোববার বেলা ৩টায় রামচন্দ্রপুর কলেজ মাঠে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এখন পর্যন্ত সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি সোহরাব আলী ও সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সম্পাদক নবীবুর রহমানেরই নাম শুনা যাচ্ছে বেশি।

হুজুরীপাড়া ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত সভাপতি পদে হুজুরীপাড়া ইউপি’র চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা, বর্তমান সভাপতি লুৎফর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হালিম ও মোশাররফ হোসেন নয়নের নাম শুনা যাচ্ছে।

নওহাটা পৌরসভায় সভাপতি পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবদুল মাননান ও জয়নাল আবেদীন লড়বেন। জয়নাল আবেদীন এই পৌরসভায় যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে তিনি জেলা যুবলীগের সদস্য। তৃণমুল ও উপরমহলের সাথে তার সম্পর্ক ভাল বলে জানা গেছে।

এই পৌরসভায় সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান নওহাটা পৌর যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক, আশরাফ আলী, জাহাঙ্গীর হোসেন ও কাজী মোজাম্মেলের নাম শুনা যাচ্ছে।

হরিয়ান ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি আলহাজ্ব ইয়াছিন আলী, আলহাজ্ব ওবায়দুল্লাহ, আলহাজ্ব আবুল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক জেবর আলী, ইব্রাহিম হোসেন, হানিফ মোহাম্মদ পলাশ, মেহের আলী ও মাসুম মোল্লার নাম শুনা যাচ্ছে।

হরিপুর ইউনিয়নে সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি সাইদুর রহমান বাদল, বাবর আলী ও আবুল কালাম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান নবাব, রফিকুল ইসলাম ও ইকবাল হোসেন পান্নার নাম শুনা যাচ্ছে। তবে সাইদুর রহমান বাদল এই ইউনিয়নে একজন পরীক্ষিত আওয়ামী লীগ নেতা। তিনি জামায়াত-শিবিরের নাশকতা ও মাদকের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছেন। এজন্য তিনি মামলা -হামলারও শিকার হয়েছেন। এরপরেও কেহ নেতৃত্ব পেলে দলের স্বার্থে তিনি তার সাথেই কাজ করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। সবমিলিয়ে জমে উঠেছে পবায় আ’লীগের সম্মেলন।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top