রাজশাহী মহানগরীতে নেতা-কর্মীদের নতুন মামলায়: জামায়াতের প্রতিবাদ

প্রেস বিজ্ঞপ্তি | প্রকাশিত: ১১ জানুয়ারী ২০২৩ ১১:৫৩; আপডেট: ১১ জানুয়ারী ২০২৩ ১২:০১

ছবি: সংগৃহীত

জামায়াতে ইসলামী রাজশাহী মহানগরীর নিরাপরাধ নেতা-কর্মীসহ সাধারণ মানুষের উপর মিথ্যা ও গায়েবি মামলায় রাজশাহী মেট্রোপলিট পুলিশ কর্তৃক নাম জড়ানোর তিব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন রাজশাহী মহানগরীর নেতৃবৃন্দ।

গত ৯ জানুয়ারি এক যৌথ প্রতিবাদ বিবৃতিতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী রাজশাহী মহানগরীর আমীর, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য মাওলানা ড. কেরামত আলী, নায়েবে আমীর অধ্যক্ষ সিদ্দিক হোসেন, এ্যড.আবু মোহাম্মদ সেলিম ও সেক্রেটারী ইমাজ উদ্দিন মন্ডল বলেন, রাজশাহী মহানগরীর রাজপাড়া থানায় গত ৫ তারিখ ও মতিহার থানায় গত ৮ তারিখ এবং ৬ তারিখে চন্দ্রিমা থানায় গায়েবি মামলা রুজু করা হয়।

একটি মামলার এজাহারে জামায়াতে ইসলামী রাজশাহী মহানগরীর নায়েবে আমির ও ৭১ বছর বয়স্ক বর্ষিয়ান জননেতা অধ্যক্ষ সিদ্দিক হোসেন, মহানগরী সেক্রেটারী ইমাজ উদ্দিন মন্ডলসহ মতিহার থানার বিভিন্ন নেতা-কর্মীর নাম উল্লেখ করে একটি গায়েবি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আমরা গভীর উদ্বেগ ও দুঃখের সাথে লক্ষ্য করছি, রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ বেশ কিছুদিন ধরে রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন বাসায় পুলিশি অভিযানের নামে সাধারণ মানুষদের দিনের পর দিন হয়রানি করে যাচ্ছে।

বিনা ওয়ারেন্টে ও বিনা অভিযোগে লোকজনকে একের পর এক গ্রেফতার করছে। গ্রেফতারদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না পেয়ে তাদের অনেকেই অতীতের দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে কোর্টে চালান দিচ্ছেন। এ ছাড়াও মতিহার থানাসহ মেট্রোপলিটন পুলিশের বিভিন্ন থানা নতুন বানোয়াট-মিথ্যা মামলা সাজিয়ে জামায়াতের নেতা-কর্মীদের জড়িত করে হীন উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের কৌশল অবলম্বন করে যাচ্ছে।

নেতৃবৃন্দ আরোও বলেন, বর্তমান পুলিশ প্রসাশন দেশের জান-মালের নিরপত্তা দানের পরিবর্তে মানুষের জানমালের ক্ষতি সাধনে ব্যস্ত। সরকারের প্রত্যক্ষ নির্দেশে ঢাকা-রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় পুলিশের এ ধরনের আচরণ দেশে আইনের শাসন, গনতন্ত্র ও মানুষের মৌলিক অধিকারের সুস্পষ্ট লংঘন।

নেতৃবৃন্দ হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, পুলিশ অন্যায়ভাবে দিনের পর দিন মানুষকে মিথ্যা মামলায় জড়াবে এবং বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে বিনা অপরাধে হয়রানি করবে দেশের মানুষ তা কোন ভাবেই মেনে নিবেনা। আমরা পুলিশকে এ ধরনের আচরণ থেকে বিরত থাকার ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের আহ্বান জানান।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top