রাবির আইন বিভাগে 'বঙ্গবন্ধু দাবা প্রতিযোগিতা' উদ্বোধন

রাবি প্রতিনিধি: | প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৪:৩৬; আপডেট: ১৭ জুন ২০২৪ ০৭:২০

ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে আয়োজিত 'বঙ্গবন্ধু দাবা প্রতিযোগিতা-২০২৩' শুরু হয়েছে। তিন দিনব্যাপী এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছেন ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৭৬ জন প্রতিযোগী শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একাডেমিক ভবনের ২৪৪ নং কক্ষে এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. এম. হাসিবুল আলম প্রধান।

এই প্রতিযোগিতায় নগরীর ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বর্তমান ও সাবেক মিলিয়ে ৭৬ জন শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করছেন। স্কুল-কলেজের (গ্রুপ 'ক') মধ্যে রয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল, শেখ রাসেল মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, পিএন গার্লস স্কুল, রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল ও কলেজ, রাজশাহী কলেজ, নিউ গভ. ডিগ্রী কলেজ। বিশ্ববিদ্যালয় ও অ্যালামনাইদের (গ্রুপ 'খ') মধ্যে রয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি), রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট), বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় (ববি) ও নর্থ বেঙ্গল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

দাবা খেলার আয়োজক কমিটি অত্র বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থীরা। এই প্রতিযোগিতার যুগ্ম আহ্বায়ক ও আইন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ফারদিন বিন আব্দুল্লাহ বলেন, দাবা একটি বুদ্ধিভিত্তিক খেলা।

তরুণেরা খেলাধুলা ও সৃজনশীলতায় যত এগিয়ে আসবে, দেশ ততই এগিয়ে যাবে। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা এই খেলাটি চর্চার মাধ্যমে নিজেদের বুদ্ধির বিকাশ ঘটাতে পারবে। রাবির আইন বিভাগ টানা তৃতীয়বারের সাফল্যের পর এবছর বঙ্গবন্ধু চেস চ্যাম্পিয়নশীপের চতুর্থ আয়োজন করেছে।

তিনি আরো বলেন, দাবা খেলার প্রতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছিল অন্য রকম ভালো লাগা। এ মহামানবের নামে উৎসর্গ করে আমরা এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছি। এবারের প্রতিযোগিতায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি স্কুল ও কলেজের প্রতিযোগিরাও অংশ নিয়েছেন।

এসময় আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আহসান কবির বলেন, দাবা একটি বুদ্ধিবৃত্তিক খেলা। একজন দাবাড়ুর চিন্তা শক্তি প্রখর হয়। এমন প্রতিযোগিতা আয়োজন করার জন্য আয়োজক কমিটিকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। দাবা খেলায় যে পরিমানে ফান্ডিং, ট্রেইনিং বা টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করা প্রয়োজন সে সামর্থ্য আমাদের না থাকায় আমরা অনেক পিছিয়ে আছি। আমি আশা করি, আমাদের দাবাড়ুরা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে গ্রান্ড মাস্টার হয়ে দেশ ও দেশের সুনাম অর্জন করবে।

খেলা উদ্বোধন করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক হাসিবুল আলম প্রধান বলেন, এই প্রতিযোগিতা শিক্ষার্থীদের ক্রীড়া প্রতিভা বিকাশের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু ও মহান স্বাধীনতা সংগ্রামকে জানতে সহায়তা করবে। পাশাপাশি আমাদের শিক্ষার্থীদের চিন্তাচেতনা, মননশীলতা, শারীরিক ও মানসিকভাবে সুনাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে সহায়তা করবে।

বঙ্গবন্ধুর নামে প্রতিযোগিতার আয়োজন করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। খেলায় জয় পরাজয় দুটোই আছে। যারা জয়ী হবে আমি তাদের অগ্রীম ধন্যবাদ জানিয়ে আজকের খেলার উদ্বোধন ঘোষণা করছি।

এর আগে, ২০২২ সালের ২৪-২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ সালে ২৮-২৯ ফেব্রুয়ারি ও ২০১৯ সালের ২২-২৩ ফেব্রুয়ারি অত্র বিভাগের শিক্ষার্থীরা দাবা প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছিল।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top