টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শেষ তিন ম্যাচ নিয়ে বিপাকে আইসিসি

রাজ টাইমস ডেস্ক : | প্রকাশিত: ১৪ মে ২০২৪ ১৯:১৮; আপডেট: ৩০ মে ২০২৪ ১৫:২১

- ছবি - ইন্টারনেট

আর মাত্র ১৮ দিন পর মাঠে গড়াবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আইসিসির জমজমাট এই আয়োজন এবার অনুষ্ঠিত হবে যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের যৌথ আয়োজনে। ইতোমধ্যেই বিশ্বকাপের জন্যে স্কোয়াড ঘোষণা করে প্রায় সব দল গুলো।

তবে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দুটি সেমিফাইনাল ও ফাইনাল ম্যাচের জন্য রিজার্ভ ডে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। কিন্তু এ নিয়ে বিপাকে পড়তে হয়েছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে।

এ বছরের শুরুর দিকে কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা করেছে আইসিসি। সূচির শেষ তিনটি ম্যাচ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে দেখা দিয়েছে বিতর্ক। বিতর্কের কারণ, দুই সেমিফাইনাল ও ফাইনালের মধ্যে ব্যবধান খুব বেশি সময়ের নয়। চার দিনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে তিনটি বড় ম্যাচ। ঘোষিত সূচি অনুসারে আগামী ২৬ ও ২৭ জুন সেমিফাইনাল। একদিন পর ফাইনাল। তিনটি ম্যাচের জন্যই রাখা হয়েছে রিজার্ভ ডে।

বিতর্কের সূত্র এখানেই। কারণ, সেমিফাইনালের ম্যাচ দুটি হবে ১৪ ঘণ্টার ব্যবধানে (বাংলাদেশ সময় ভোর ৬.৩০টা ও রাত ৮.৩০টা)। অর্থাৎ সেমিফাইনালের ম্যাচ দুটি হবে বাংলাদেশ সময় ২৭ জুন সকাল ও রাতে। দ্বিতীয় সেমিফাইনাল রিজার্ভ ডেতে গড়ালে জয়ী দল ফাইনাল খেলার জন্য ২৪ ঘণ্টা সময়ও পাবে না। এখানেই শেষ নয়, দ্বিতীয় সেমিফাইনাল (গায়ানা) ও ফাইনাল (বার্বাডোজ) দুই ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হবে।

এ সময়ের মধ্যে আবার ভ্রমণ ক্লান্তিও পোহাতে হবে ফাইনালিস্টদের। গায়ানা ও বার্বাডোজের দূরত্বও কম নয়। ৯২৮ কিলোমিটারের ব্যবধান! খুব স্বাভাবিকভাবেই রিজার্ভ ডে সংকটে পড়ার আশঙ্কায় পড়েছে আইসিসি।

অথচ সবশেষ বিশ্বকাপগুলোর সূচি ঘাঁটলে দেখা যায় দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ও ফাইনালের মধ্যে ব্যবধান ছিল অন্তত দুই দিনের। গত বছর ভারতে ওয়ানডে বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল হয়েছিল ১৬ নভেম্বর। ১৯ নভেম্বর ফাইনাল। অস্ট্রেলিয়াতে ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ছিল ১০ নভেম্বর। ফাইনাল ১৩ নভেম্বর।

এর আগে ২০২১ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ১১ নভেম্বর মঞ্চায়ন করা হয় দ্বিতীয় সেমিফাইনাল। ফাইনাল মাঠে গড়ায় ১৪ নভেম্বর। কিন্তু এবার সেই পথে হাঁটেনি আইসিসি। মহাগুরুত্বপূর্ণ দুই ম্যাচের আগে একদিনের বিরতি দিয়ে ভালোই বিপাকে পড়েছে তারা। এই বিতর্কের মধ্যে এখনও মুখে কুলুপ এঁটে রেখেছে আইসিসি ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড।



বিষয়:


বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস
এই বিভাগের জনপ্রিয় খবর
Top